শিশু জন্মের পর পরিচর্যা সম্পর্কে জানুন

শিশু জন্মের পর তার কি ধরনের পরিচর্যা করতে হয়? এ ব‌্যাপারে আমরা অনেকেই জানিনা। শিশু জন্মের পর তার সঠিক পরিচর্যা করা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। শিশুর স্বাস্থ‌্যের যত্ন, শিশুর কাপড় ও পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা, শিশুকে দুধ খাওয়ানোর নিয়ম, শিশুর ঘুমানোর নিয়ম, শিশুর মলত‌্যাগ করার নিয়ম, শিশুর দাঁত পরিষ্কার করা ইত‌্যাদি বিষয়ে সচেতন হতে হবে। তাই সচেতন মা-বাবা হিসেবে প্রত‌্যেক পিতা-মাতার শিশু জন্মের পর পরিচর্যা সম্পর্কে সঠিক ধারণা থাকা প্রয়োজন। এই পিজটিতে শিশু জন্মের পর পরিচর্যা সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে।

শিশু জন্মের পর পরিচর্যা

সন্তান আল্লাহ পাকের দেয়া নেয়ামতের মধ‌্যে শ্রেষ্ঠ নেয়ামত। কাজেই সন্তান যাই হোক, পুত্র বা কন‌্যা তার জন‌্য আল্লাহ পাকের দরবারে শোকর আদায় করা উচিত।

শিশু জন্মের পর পরিচর্যা

সন্তান ভুমিষ্ঠ হওয়ার পরই অনেকগুলো দায়িত্বি ও কর্তব‌্য পিতামাতার প্রতি এসে পড়ে। প্রথমে শিশু সন্তানের স্বাস্থ‌্যের দিকে নজর দিতে হবে। শিশুর স্বাস্থ‌্য ভালো থাকলে আদর্শ নাগরিক হিসেবে গড়ে উঠতে সুবিধা হয়। শিশু যদি ভবিষ‌্যতের উত্তম নাগরিক হিসেবে গড়ে উঠে তাতে যেমন পিতামাতার গৌরব আবার দেশেরও গৌরব।

শিশুকে সবসময় পরিষ্কার ও শুষ্ক কাপড় দিয়ে জড়িয়ে রাখতে হবে। বিছানাটা যাতে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকে সে দিকে লক্ষ‌্য রাখতে হবে। শিশু সন্তানকে যাতে মশা, ছারপোকায় কামড় না দেয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। শিশুকে অতিরিক্ত গরম ঘরে আবদ্ধ রাখা অথবা শীতে কষ্ট দেওয়া স্বাস্থ‌্যহানীর কারণ হতে পারে। শিশু যখন ঘুমায় তখন ছোট মশারী টানিয়ে দিতে হবে যাতে মাছি কোন বিরক্ত করতে না পারে।

সন্তানকে শিশুকাল হতেই তার মাতার কতকগুলি বিষয়ে অভ‌্যস্ত হতে হবে। যেমন সময়মত তাকে খাদ‌্য খাওয়ানো, সময় মত ঘুমের ব‌্যবস্থা করা, পায়খানা প্রস্রাবের একটা নির্দিষ্ট সময় করে তাকে পায়খানা প্রস্রাব করাতে হবে। এত শিশু সন্তান সময়মত মলমূত্র ত‌্যাগ করার অভ‌্যাস করতে পারে।

সন্তানের মাকে সবসময় দুধ পান করানোর সময় স্তনের বোটা পরিষ্কার করে নিতে হবে। কারণ অনেক সময় ময়লা বা বিষাক্ত জীবাণু লেগে থাকতে পারে। আর ঐ বিষাক্ত জীবাণু শিশুর পেটে যেয়ে পেটে অসুখ করতে পারে। সন্তানকে বেশি সময় ধরে দুধ পান করাবেন না। শিশু যতক্ষণ ইচ্ছা সে মায়ের স্তন চুষতে থাকবে। এতে বেশি দুধপানের কারণে পেটের পীড়া দেখা দিতে পারে। সন্তানকে কখন কত সময় দুধপান করাতে হবে তা মাকে নির্ধারিত করতে হবে।

সন্তান ভূমিষ্ঠ হওয়ার পর হতে কয়েক সপ্তাহ পর্যন্ত দিনের বেশির ভাগ সময় ঘুম যেয়ে থাকে। কাজেই শিশুর বিছানাপত্র যেন আরামপ্রিয় হয় সেদিকে দৃষ্টি দিতে হবে। শিশু ঘুমানোর সময় মুখমণ্ডল ঢেকে রাখা ঠিক না। এতে শিশুর শ্বাসকষ্ট হতে পারে। শিশুকে সবসময় নির্মল আলো বাতাসের মধ‌্যে রাখতে হবে। প্রতিদিন অল্প গরম (কুসুম কুসুম গরম) পানি দিয়ে শিশুকে গোসল করাতে হবে। গোসলের পর শরীর পরিষ্কার তোয়ালে দিয়ে ভাল করে মুছে সরিষার তেল মালিশ করতে হবে।

সন্তান জন্মের পর ২/৩ মাস পর্যন্ত তাকে দুই ঘন্টা পরপর দুধ পান করাতে হবে। মায়ের বুকের দুধ কম হলে গাভী কিংবা ছাগলের দুধ পান করানো যায়। বেশি রাতে শিশুকে দুধ খাওয়ানোর অভ‌্যেস করবেন না। এতে শিশু এবং মায়ের উভয়ের ঘুমের অসুবিধা হয়। এতে স্বাস্থ‌্যহানী ঘটতে পারে।

সন্তান তিন বা চার মাসের হলে তাকে তিন বা চার ঘন্টা পরপর দুধপান করাতে হবে। রাতে শিশু ঘুম যাওয়ার পরে তাকে দুধ পান করাবেন না। ৬/৭ মাস বয়স হলে সবুজ শাকসবজি, তরকারী, ডাল মিশ্রিত খিচুরী খাওয়াতে হবে। মাঝ মাঝে একটা ডিম সিদ্ধ করে খেতে দিবেন। সন্তানের দাঁত উঠার আগে তাকে ভাত, মাংস বা অন‌্য কোন শক্ত খাবার খেতে দিবেন না। কমলালেবু, আঙ্গুর, আনারের রস ইত‌্যাদি খাওয়াতে হবে।

শিশু সুস্থ দেহে প্রতিদিন ২/৩ বার মলত‌্যাগ করে থাকে। যদি এর ব‌্যতিক্রম হয় তবে বুঝতে হবে কোষ্ঠ‌কাঠিন‌্য হয়েছে। তখন ভালো ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী কাজ করতে হবে। শিশুর জন‌্য হোমিওপ্যাথি চিকিৎসাই ভাল। হাতুরে ডাক্তার দ্বারা শিশু সন্তানের চিকিৎসা করাবেন না। শিশুর লক্ষণ ও মায়ের কথা শুনে চিকিৎসা করতে হয় কাজেই ভালো ডাক্তার ছাড়া শিশুর চিকিৎসা করা উচিত নয়।

সন্তানের বয়স সাত মাস কিংবা আট মাস হলে দাঁত উঠতে থাকে এবং আড়াই বৎসর বয়সের মধ‌্যে প্রায় সম্পূর্ণ দাঁত গজিয়ে যায়। দাঁত গজানোর পরে নিয়মিতভাবে দাঁত পরিষ্কার করাতে হবে। দাঁত পরিষ্কার না করলে দাঁত নষ্ট হয়ে যায়। এজন‌্য দাঁতের ব্রাস ব‌্যবহার করানোর অভ‌্যেস করাবেন। অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় অপরিষ্কার দাঁত ক্ষয়প্রাপ্ত হয়ে মাড়িতে ব‌্যাথার সৃষ্টি হয়। দাঁত টেরাবেকা হয়। সর্ব অবস্থায় একজন শিশু সন্তানকে তার পিতা-মাতা, ভাই-বোন এবং অন‌্যান‌্য নিকটাত্মীয় সবার ঐ শিশুর প্রতি সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে।

আরবি, বাংলা ও ইংরেজী অক্ষর দিয়ে মেয়েদের নাম

আরবি, বাংলা ও ইংরেজী অক্ষর দিয়ে মেয়েদের নাম দেখতে আপনার পছন্দ অনুযায়ী নিচের বাটনে ক্লিক করুন।

আ (ع-ا) (A) দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন ব (B) দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন গ (G) দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন হ (ح-ه) (H) দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন ই-ঈ (I-Y-E) দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন খ (Kha) দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন ক (Q-K) দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন ছ-শ-স ث-ش-س S দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন জ-য (ج-ض-ظ-ز-ذ) Z-J দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন উ (U) দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন ও (W) দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন ত (ت-ط) T দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন ন (ن) N দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন ফ-ف-F দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন ম-م-M দিয়ে মেয়েদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন

দৃষ্টি আকর্ষণঃ সম্মানিত ভিজিটর, ওয়েবসাইটটি ভিজিট করার জন্য আপনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি। আমাদের একটি দল এই ওয়েবসাইটে বিভিন্ন তথ্য দেওয়ার জন্য নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছে। আপনি ইচ্ছা করলে এই ওয়েবসাইটে কর্মরত ব্যক্তিদের উদ্দেশ্যে যে কোন পরিমাণ টাকা বিকাশ-এর মাধ্যমে হদিয়া করতে পারেন। হাদিয়া দেওয়ার জন্য বিকাশ পার্সোনাল নাম্বারটি নিচে দেওয়া হলোঃ

01750101908

আরবি, বাংলা ও ইংরেজী অক্ষর দিয়ে ছেলেদের নাম

আরবি, বাংলা ও ইংরেজী অক্ষর দিয়ে ছেলেদের নাম দেখতে আপনার পছন্দ অনুযায়ী নিচের বাটনে ক্লিক করুন।

এ (ع-ا) (A-E-I) দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন আ (ا-ع) (A) দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন ব (ب) (B) দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন দ (د) (D) দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন ফ ف F দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন গ (غ) (G) দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন ই-ঈ (ى-ا-ع) (I-Y-E) দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন জ (ج) (J) দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন খ (خ) (Kha) দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন ল ل L দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন ম (م) (M) দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন ন (ن) (N) দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন উ (ا-ع) (O-U) দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন অ (و) (O) দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন ক (ك-ق) (Q-K) দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন র ر R দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন শ (ش) (S) দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন ছ-স (ث-ص-س) (S) দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন ত (ط-ت) (T) দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন ও (و) (W) দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন য (ز-ذ) (Z-J) দিয়ে ছেলেদের ইসলামিক নাম দেখতে এখানে ক্লিক করুন

প্রত্যেক পিতা-মাতার জন‌্য যে বিষয়গুলো জানা প্রয়োজন

প্রত্যেক পিতা-মাতার জন‌্য যে বিষয়গুলো জানা প্রয়োজন তা বিভিন্ন পেজে আলোচনা করা হয়েছে। পেজের লিংকগুলো নিচের বাটনের মাধ্যমে দেয়া হয়েছে। আপনার পছন্দ অনুযায়ী নিচের বাটনগুলোতে ক্লিক করে পেজগুলো ভিজিট করার জন‌্য অনুরোধ করছি।

ভাল নাম রাখা পিতার ওপর সন্তানের হক। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন নামের গুরুত্ব কি? বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন আরবী নামের প্রয়োজনীয়তা কি? বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন পিতার নামেই সন্তানের প্রকৃত পরিচয়। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন শিশু জন্মের পর কিভাবে পরিচর্যা করতে হয়? বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন