বানান শুদ্ধিকরণ ও বাক্য শুদ্ধিকরণ

বাংলা ভাষা রীতিতে এবং বাংলা বানানে বিভিন্ন সময়ে ভুল সংক্রান্ত বিড়ম্বনার সৃষ্টি হয়। ব‌্যাকরণের ভাষায় এই সব ভুল বানানকে শুদ্ধ করে লেখাই হচ্ছে বানান শুদ্ধিকরণ। ভাষার শুদ্ধতা রক্ষা করার ক্ষেত্রে বানান একটি গুরুত্বপূর্ণ ব‌্যাপার। বাংলা ভাষার ক্ষেত্রে শুদ্ধ বানানটি জেনে নেওয়া অত‌্যধিক গুরুত্বপূর্ণ।

বাংলা বানান সম্পর্কে কিছু সাধারণ নিয়ম

বাংলা বানান শুদ্ধিকরণ এর জন‌্য কিছু নিয়ম রয়েছে। এখানে বাংলা বানান সম্পর্কে কিছু সাধারণ নিয়ম আলোচনা করা হয়েছে।

১. মিশ্র সংযোগ (দুই অক্ষরের)

ক + ত = ক্ত ঙ + গ = ঙ্গ
ক + ষ = ক্ষ ল + প = ল্প
ক + ক = ক্ক ঞ + চ = ঞ্চ
গ + ধ = গ্ধ ঞ + জ = ঞ্জ
ঙ + ক = ঙ্ক ঞ + ছ = ঞ্ছ
ট + ট = ট্ট ন + ধ = ন্ধ
ণ + ড = ণ্ড শ + ছ = শ্ছ
দ + ধ = দ্ধ স + প = স্প
দ + দ = দ্দ স + থ = স্থ
ত + থ = ত্থ ম + ফ = ম্ফ

২. মিশ্র সংযোগ (তিন অক্ষরের)

ক + ষ + ম = ক্ষ্ম ন + ত + ব = ন্ত্ব
ক + ষ + ণ = ক্ষ্ণ ন + ধ + য = ন্ধ্য
ত + ত + ব = ত্ত্ব ন + ত + ব = ন্ত্ব
ন + দ + র = ন্দ্র ম + প + র = ম্প্র
র + শ + ব = র্শ্ব র + ধ + ব = র্ধ্ব
ণ + ণ + য = ণ্ণ্য ম + ভ + য = ম্ভ্য

৩. সুধী, সুধীবর্গ
‘সুধী’ শব্দে বাংলায় সর্বদাই ‘ধ’-এ দীর্ঘ ঈকার হয়। বাংলায় কোনো ক্ষেত্রেই সুধী শব্দে হ্রস্ব-ই কার চলে না।

৪. শ্রদ্ধাস্পদেষু, শ্রদ্ধাস্পাদাস্যু
আস্পদ লিখতে দন্ত্য-স হয়। কখনো মূর্ধণ্য-ষ নয়। সুতরাং এর বানান হবে স্প দিয়ে।

৫. বিদুষী
বিদ্বান শব্দের স্ত্রী লিঙ্গ বিদুষী, বিদুষী লিখতে দ-এ হ্রস্ব-উ-কার হয়। এভাবে দুর্গা শব্দেও দ-এ হ্রস্ব-উ-কার।

বানান ঘটিত অশুদ্ধি

এখানে বানান ঘটিত অশুদ্ধি দেওয়া হয়েছে।

অশুদ্ধ শুদ্ধ অশুদ্ধ শুদ্ধ
কুলিণ কুলীন উৎপাৎ উৎপাত
ঘনিষ্ট ঘনিষ্ঠ শারিরিক শারীরিক
আকূল আকুল মূহুর্ত মুহূর্ত
অকুল অকূল সন্যাসী সন্ন্যাসী
অদ্ভুদ অদ্ভুত দোশণীয় দূষণীয়
অনূকুল অনুকূল শুশ্রুষা শুশ্রূষা
সন্মান সম্মান উচিৎ উচিত
মধুসুধন মধুসূদন বিভিষিকা বিভীষিকা
দির্গ দীর্ঘ রামায়ন রামায়ণ
ব‌্যাবসা ব‌্যবসায় পূণ্য পুণ্য
হটাৎ হঠাৎ জাগ্রত জাগরিত
কিরিট কিরীট উচ্ছাস উচ্ছ্বাস
ভাগিরথী ভাগীরথী মহত্ব মহত্ত্ব
গর্ধভ গর্দভ পিচাশ পিশাচ
নিশিথ নিশীথ লক্ষী লক্ষ্মী
সাহার্য্য সাহায্য শরহৎচন্দ্র শরৎচন্দ্র
শরত শরৎ নীরিক্ষণ নিরীক্ষণ
ইষৎ ঈষৎ সাক্ষাত সাক্ষাৎ

ণ-ত্ব ও ষ-ত্ব ঘটিত অশুদ্ধি

এখানে ণ-ত্ব ও ষ-ত্ব ঘটিত অশুদ্ধি দেওয়া হয়েছে।

অশুদ্ধ শুদ্ধ অশুদ্ধ শুদ্ধ
কৌলিণ‌্য কৌলীন্য নিশেধ নিষেধ
পরিনাম পরিণাম প্রার্থণা প্রার্থনা
অগ্রনী অগ্রণী গৃহিনী গৃহিণী
পুরষ্কার পুরস্কার নিলস্ফল নিস্ফল
গনণা গণনা সুসমা সুষমা
ফাল্গুণ ফাল্গুন পুস্প পুষ্প
দূর্নীতি দুর্নীতি প্রনয়ণ প্রণয়ন
যন্ত্রনা যন্ত্রণা আশীষ আশিস
অপরাহ্ন অপরাহ্ণ আহ্ণিক আহ্নিক

লিঙ্গ ঘটিত অশুদ্ধি

এখানে লিঙ্গ ঘটিত অশুদ্ধি দেওয়া হয়েছে।

অশুদ্ধ শুদ্ধ অশুদ্ধ শুদ্ধ
অদ্বিতীয় নারী অদ্বিতীয়া নারী বৈবাহিক বৈবাহিকা
অনাথিনী অনাথা রজকিনী রজকা
ঈদৃশ রচনা ঈদৃশী রচনা চটকিনী চটকা
ননদিনী ননদ গায়কী গায়িকা

সন্ধি ঘটিত অশুদ্ধি

এখানে সন্ধি ঘটিত অশুদ্ধি দেওয়া হয়েছে।

অশুদ্ধ শুদ্ধ অশুদ্ধ শুদ্ধ
কতকাংশ কতক অংশ মনান্তর মন্বন্তর
অধগতি অধোগতি শিরপীড়া শিরঃপীড়া
মনহর মনোহর মনমোহন মনোমোহন
ইতিপূর্বে ইতঃপূর্বে আপনাপন আপন আপন
অদ্যপি অদ্যাপি শিরচ্ছেদ শিরশ্ছেদ
বয়ঃবৃদ্ধি বয়োবৃদ্ধি অধ‌্যায়ন অধ‌্যয়ন
অন্তস্থল অন্তঃস্থল দুরাবস্থা দুরবস্থা
ইতিমধ‌্যে ইতোমধ্যে স্বয়ম্বর স্বয়ংবর
কিম্বদন্তী কিংবদন্তী মনোকষ্ট মনঃকষ্ট
অত‌্যাধিক অত‌্যধিক মনযোগ মনোযোগ
নিরোগ নীরোগ সদ‌্যজাত সদ্যোজাত

সমাস ঘটিত অশুদ্ধি

এখানে সমাস ঘটিত অশুদ্ধি দেওয়া হয়েছে।

অশুদ্ধ শুদ্ধ অশুদ্ধ শুদ্ধ
আকণ্ঠ পর্যন্ত আকণ্ঠ দেবীদাস দেবদাস
পরম সুন্দরী পরমা সুন্দরী আত্মাপুরুষ আত্মপুরুষ
দিবারাত্রি দিবারাত্র পিতাহীন পিতৃহীন
প্রাণীহত‌্যা প্রাণিহত‌্যা নৈরাশ নিরাশ
সানন্দিত আনন্দিত মহারাজা মহারাজ
নদিতট নদীতট নীরোগী নীরোগ
অল্পজ্ঞানী অল্পজ্ঞান বহুরূপী বহুরূপ
অহোরাত্রি অহোরাত্র ফণীভূষণ ফণিভূষণ
সাবধান পূর্বক সাবধানে নির্দোষী নির্দোষ
ছাগীদুগ্ধ ছাগদুগ্ধ কু-অন্ন কদন্ন

প্রত্যয় ঘটিত অশুদ্ধি

এখানে প্রত‌্যয় ঘটিত অশুদ্ধি দেওয়া হয়েছে।

অশুদ্ধ শুদ্ধ অশুদ্ধ শুদ্ধ
অধীনস্থ অধীন অহোরাত্রি অহোরাত্র
অদ‌্যাপিও অদ্যপি দোষনীয় দূষণীয়
নিঃশোষিত নিঃশেষ একত্রিত একত্র
চাঞ্চল্যতা চাঞ্চল্য প্রসারতা প্রসার
ভাগ‌্যমান ভাগ্যবান শ্রেষ্ঠতম শ্রেষ্ঠ
সৌজন‌্যতা সৌজন্য ঐক্যতা ঐক্য, একতা
পৌরুষত্ব পৌরুষ সন্তোষ হওয়া সন্তুষ্ট হওয়া
রাজনৈতিক রাজনীতিক প্রফুল্লিত প্রফুল্ল
সৌন্দর্যতা সৌন্দর্য সবিনয় বিনয়পূর্বক
বুদ্ধিমত্ত বুদ্ধিমত্তা বাহুল্যতা বাহুল্য, বহুলতা
সুরভিত সুরভি অস্তমান অস্তায়মান
আধিক্যতা আধিক্য বিশুদ্ধতা বিশুদ্ধ
সৌহৃদ্যতা সৌহার্দ, সৌহৃদ্য অহনিশি অহর্নিশ
বৃক্ষরাজি সমূহ বৃক্ষরাজি, বৃক্ষসমূহ সিঞ্চন সেচন

বাক‌্য শুদ্ধিকরণ

বাংলা ভাষায় বানান শুদ্ধিকরণের মতো বাক‌্য শুদ্ধিকরণও একটি গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার। বাংলা বানান ও ভাষারীতিতে বাক্যের ভুল সংক্রান্ত বিড়ম্বনাগুলো যে সমস্ত কারণে হয়ে থাকে সেগুলো সাধারণত- (১) বাক‌্য সৃষ্টিতে অর্থের ভুল, (২) বানানের ভুল, (৩) পদের অশুদ্ধি প্রভৃতি। বাক্যের অশুদ্ধিতে তিনটি পর্যায় লক্ষ করা যায়-

১. বর্ণের অশুদ্ধি:
অ-আ ঘটিত ভুল
ই-ঈ ঘটিত ভুল
উ-ঊ ঘটিত ভুল
ড, র, ড়, ঢ় ঘটিত ভুল
ঢ় ঘটিত ভুল
য-ফলা ঘটিত ভুল
সন্ধি ঘটিত ভুল
বর্ণ ব্যত্যয় ঘটিত ভুল

২. পদের অশুদ্ধি
লিঙ্গ ঘটিত অশুদ্ধি
বচন ঘটিত অশুদ্ধি
পুনরুক্তি ঘটিত অশুদ্ধি
প্রত্যয় ঘটিত অশুদ্ধি
সমাস ঘটিত অশুদ্ধি

৩. বাক্যের অশুদ্ধি
সাধু ও চলিতের মিশ্রণ ঘটিত অশুদ্ধি
শব্দ বা পদের দ্বিরুক্ত ঘটিত অশুদ্ধি
অলংকারের প্রয়োগ ঘটিত অশুদ্ধি
গদ‌্যে কাব‌্য ভাষার অপপ্রয়োগ ঘটিত অশুদ্ধি

শুদ্ধিকরণ এর উদাহরণ

নিম্নে কিছু শুদ্ধিকরণ এর উদাহরণ দেওয়া হলো:

অশুদ্ধ : অদ্য একটি সভার মহতী অধিবেশন হবে।
শুদ্ধ : অদ্য একটি মহতী সভার অধিবেশন হবে।
অশুদ্ধ : অন্নাভাবে প্রতি ঘরে ঘরে হাহাকার।
শুদ্ধ : অন্নাভাবে ঘরে ঘরে হাহাকার।
অশুদ্ধ : অংকটি কষিতে ভুল করো না।
শুদ্ধ : অংকটি ভুল করো না।
অশুদ্ধ : অধীনস্থ কর্মচারীরা এই কাজ করেছে।
শুদ্ধ : অধীন কর্মচারীরা এই কাজ করেছে।
অশুদ্ধ : অসময়ে বীজ বপন করলে গাছ ফলবতী হয় না।
শুদ্ধ : অসময়ে বীজ বপন করলে গাছ ফলবান হয় না।
অশুদ্ধ : অরন্য জনপদে একটি চমৎকার পুস্তক।
শুদ্ধ : অরণ্য জনপদে একটি চমৎকার পুস্তক।
অশুদ্ধ : অর্থনৈতিক কারনে বাংলাদেশ পশ্চাদপদ।
শুদ্ধ : অর্থনৈতিক কারণে বাংলাদেশ পশ্চাদপদ।
অশুদ্ধ : অন্তসত্তা মহিলা মাতৃ সদনে আগমন করলেন।
শুদ্ধ : অন্তঃসত্তা মহিলা মাতৃসদনে আগমন করলেন।
অশুদ্ধ : আমি ও আমার চাচা ঢাকায় গিয়েছিলাম।
শুদ্ধ : আমার চাচা ও আমি ঢাকায় গিয়েছিলাম।
অশুদ্ধ : আজকালকার মেয়েগুলো যেমন মুখরা তেমনি বিদ্বানও বটে।
শুদ্ধ : আজকালকার মেয়েরা যেমন মুখরা তেমনি বিদুষীও বটে।

অশুদ্ধ : আমার আয়ুষ্কালে সে ফিরবে না।
শুদ্ধ : আমার আয়ুস্কালে সে ফিরবে না।
অশুদ্ধ : আমার সাবকাশ নেই।
শুদ্ধ : আমার অবকাশ নেই।
অশুদ্ধ : আমি সাক্ষী দিয়েছি।
শুদ্ধ : আমি সাক্ষ‌্য দিয়েছি।
অশুদ্ধ : আগত শনিবারে তারা যাবে।
শুদ্ধ : আগামী শনিবারে তারা যাবে।
অশুদ্ধ : আমার টাকার আবশ‌্যক নেই।
শুদ্ধ : আমার টাকার আবশ‌্যকতা নেই।
অশুদ্ধ : আমি জোড় করে নিবেদন করছি।
শুদ্ধ : আমি যুক্ত করে নিবেদন করছি।
অশুদ্ধ : আমি অপমান হয়েছি।
শুদ্ধ : আমি অপমানিত হয়েছি।
অশুদ্ধ : আমি এ ঘটনা চাক্ষুষ প্রত্যক্ষ করেছি।
শুদ্ধ : আমি এ ঘটনা স্বচক্ষে দেখেছি।
অশুদ্ধ : আমার কথাই প্রমাণ হল।
শুদ্ধ : আমার কথাই প্রমাণিত হলো।
অশুদ্ধ : আপনী এ কাজটি করুন।
শুদ্ধ : আপনি এ কাজটি করুন।

অশুদ্ধ : আমার অত্যন্ত কার্যবাহুল্যতা।
শুদ্ধ : আমার অত্যন্ত কার্যবাহুল্য।
অশুদ্ধ : ইতোপূর্বে তার সংবাদ পাইনি।
শুদ্ধ : ইতঃপূর্বে তার সংবাদ পাইনি।
অশুদ্ধ : এটা অতি লজ্জাষ্কর ব‌্যাপার।
শুদ্ধ : এটা অতি লজ্জাকর ব‌্যাপার
অশুদ্ধ : একটা গোপন কথা বলি।
শুদ্ধ : একটা গুপ্ত কথা বলি।
অশুদ্ধ : এতে আশ্চর্য হলাম।
শুদ্ধ : এতে আশ্চর্যান্বিত হলাম।
অশুদ্ধ : এটা একটি মহৎ আবিস্কার।
শুদ্ধ : এটা একটা মহৎ আবিষ্কার।
অশুদ্ধ : এ ব‌্যক্তি সকলের মাঝে বয়স্ক।
শুদ্ধ : এ ব্যক্তি সকলের মাঝে বয়োজ্যেষ্ঠ।
অশুদ্ধ : এ তার দূর্লভ সৌভাগ্য।
শুদ্ধ : এ তার দুর্লভ সৌভাগ্য।
অশুদ্ধ : এ কাজে তার হস্ত পাকা।
শুদ্ধ : এ কাজে তার হাত পাকা।
অশুদ্ধ : একটা গোপন পরামর্শ আছে।
শুদ্ধ : একটা গোপনীয় পরামর্শ আছে।

অশুদ্ধ : ঐক‌্যতাই বল।
শুদ্ধ : একতাই বল।
অশুদ্ধ : কাঁদিয়া চক্ষু আরক্তিম হয়েছে।
শুদ্ধ : কাঁদিয়া চক্ষু আরক্ত হইয়াছে।
অশুদ্ধ : কোরাণ একটি পবিত্র গ্রন্থ।
শুদ্ধ : কোরআন একটি পবিত্র গ্রন্থ।
অশুদ্ধ : কৃপন লোকটি গতকাল এসেছিল।
শুদ্ধ : কৃপণ লোকটি গতকাল এসেছিল।
অশুদ্ধ : কুলাটা নারীকে বর্জন কর।
শুদ্ধ : কুলটা নারীকে বর্জন কর।
অশুদ্ধ : কেবলমাত্র তুমি যাইবে।
শুদ্ধ : কেবল তুমি যাইবে।
অশুদ্ধ : গৃহটি ধুলিস্মাৎ হল।
শুদ্ধ : গৃহটি ধূলিস‌্যাৎ হলো।
অশুদ্ধ : গবক্ষ পথে বায়ু প্রবাহিত হচ্ছে।
শুদ্ধ : গবাক্ষ পথে বায়ু প্রবাহিত হচ্ছে।
অশুদ্ধ : গ্রামটি ধ্বংশ হয়ে গেল।
শুদ্ধ : গ্রামটি ধ্বংস হয়ে গেল।
অশুদ্ধ : চন্দ্র উদয় হল।
শুদ্ধ : চন্দ্র উদিত হলো।

অশুদ্ধ : চাপল্যতা পরিহার কর।
শুদ্ধ : চঞ্চলতা পরিহার কর।
অশুদ্ধ : ছেলেটি অত্যন্ত দূরন্ত।
শুদ্ধ : ছেলেটি অত্যন্ত দুরন্ত।
অশুদ্ধ : জনাব প্রধান শিক্ষক সাহেব সমীপেষু।
শুদ্ধ : জনাব প্রধান শিক্ষক সমীপে।
অশুদ্ধ : ঝর্ণা ঝর্ণা সুন্দরী ঝর্ণা।
শুদ্ধ : ঝর্না! ঝর্না! সুন্দরী ঝর্না!
অশুদ্ধ : তিনি সন্তোষ হলেন।
শুদ্ধ : তিনি সন্তুষ্ট হলেন।
অশুদ্ধ : তার এখন সঙ্কট অবস্থা।
শুদ্ধ : তার এখন সঙ্কটাপন্ন অবস্থা।
অশুদ্ধ : তিনি মৌন হয়ে রইলেন।
শুদ্ধ : তিনি মৌনী হয়ে রইলেন।
অশুদ্ধ : তিনি আরোগ‌্য হয়েছেন।
শুদ্ধ : তিনি আরোগ‌্য লাভ করেছেন।
অশুদ্ধ : তার মুখে উজ্জ্বলতা হাসি নেই।
শুদ্ধ : তার মুখে উজ্জ্বল হাসি নেই।
অশুদ্ধ : তাদের সমুচিত পুরস্কার দাও।
শুদ্ধ : তাদের যথোচিত পুরস্কার দাও।

অশুদ্ধ : তিনি স্বস্ত্রীক শ্বশুর বাড়িতে গিয়েছেন।
শুদ্ধ : তিনি সস্ত্রীক শ্বশুর বাড়িতে গিয়েছেন।
অশুদ্ধ : তাঁর সমতুল্য জ্ঞানী এখানে নেই।
শুদ্ধ : তার সমান জ্ঞানী এখানে নেই।
অশুদ্ধ : তার সৌজন‌্যতা ভুলতে পারব না।
শুদ্ধ : তার সৌজন্য ভুলতে পারব না।
অশুদ্ধ : তোমার চিঠিতে অনেক ভূল আছে।
শুদ্ধ : তোমার চিঠিতে অনেক ভুল আছে।
অশুদ্ধ : তার অভিসেক সম্পন্ন হয়েছে।
শুদ্ধ : তার অভিষেক সম্পন্ন হয়েছে।
অশুদ্ধ : তার সাংস্কৃতিক নেই।
শুদ্ধ : তার সংস্কৃতি নেই।
অশুদ্ধ : তিনি সভায় পুরষ্কৃত হলেন।
শুদ্ধ : তিনি সভায় পুরস্কৃত হলেন।
অশুদ্ধ : তিনি ততধিক বলবান নহেন।
শুদ্ধ : তিনি ততোধিক বলবান নহেন।
অশুদ্ধ : তিনি নিরব রইলেন।
শুদ্ধ : তিনি নীরব রইলেন।
অশুদ্ধ : তিনি চখুরোগে আক্রান্ত হয়েছেন।
শুদ্ধ : তিনি চক্ষু রোগে আক্রান্ত হয়েছেন।

অশুদ্ধ : তারা মরুদ‌্যানে বাস করেন।
শুদ্ধ : তারা মরূদ্যানে বাস করেন।
অশুদ্ধ : তিনি মনো কষ্টে ভুগিতেছেন।
শুদ্ধ : তিনি মনঃকষ্টে ভুগিতেছেন।
অশুদ্ধ : তার দারিদ্রতা অসহনীয়।
শুদ্ধ : তার দারিদ্র্য অসহনীয়।
অশুদ্ধ : তিনি একজন বুদ্ধ।
শুদ্ধ : তিনি একজন বৌদ্ধ।
অশুদ্ধ : তাকে দেখে আমি আশ্চর্য হলাম।
শুদ্ধ : তাকে দেখে আমি আশ্চর্যান্বিত হলাম।
অশুদ্ধ : তাহার সৌজন্যতা ভুলিতে পারিব না।
শুদ্ধ : তাহার সৌজন‌্য ভুলিতে পারিব না।
অশুদ্ধ : তদৃষ্টে সকলেই আনন্দ হইল।
শুদ্ধ : তদ্দর্শনে সকলেই আনন্দিত হইল।
অশুদ্ধ : দুরাকাংখা সর্বদা পরিত্যাজ্য।
শুদ্ধ : দুরাকাঙ্ক্ষা সর্বদা পরিত্যাজ্য।
অশুদ্ধ : দৈনাতা সব প্রশংসনীয় নহে।
শুদ্ধ : দীনতা সব সময় প্রশংসনীয় নহে।
অশুদ্ধ : নীরোগ লোক প্রকৃত সুখী।
শুদ্ধ : নীরোগ লোক যথার্থ সুখী।

অশুদ্ধ : নূরজাহান পরম সুন্দরী ছিলেন।
শুদ্ধ : নূরজাহান পরমা সুন্দরী ছিলেন।
অশুদ্ধ : নিশ্চয়ই সংবাদ পাইয়াছি কী?
শুদ্ধ : নিশ্চিত সংবাদ পাইয়াছ কী?
অশুদ্ধ : নিরপরাধী লোক কাউকেও ভয় করে না।
শুদ্ধ : নিরপরাধ লোক কাউকেও ভয় করে না।
অশুদ্ধ : পাতায় পাতায় পরে নিশির শিশির।
শুদ্ধ : পাতায় পাতায় পড়ে নিশির শিশির।
অশুদ্ধ : প্রোঢ় লোকটি কাল আসবে।
শুদ্ধ : প্রৌঢ় লোকটি কাল আসবে।
অশুদ্ধ : প্রাতকালে গাত্রোথান করবে।
শুদ্ধ : প্রাতঃকালে গাত্রোত্থান করবে।
অশুদ্ধ : প্রধান শিক্ষিকা সভায় সভাপতিত্ব করেন।
শুদ্ধ : প্রধান শিক্ষিকা সভায় সভানেত্রিত্ব করেন।
অশুদ্ধ : পাসানে মাথা কুটে কোন লাভ হবে না।
শুদ্ধ : পাষাণে মাথা কুটে কোনো লাভ হবে না।
অশুদ্ধ : ফাল্গুনে গাছে গাছে আগুণ লাগে।
শুদ্ধ : ফাল্গুনে গাছে গাছে আগুন লাগে।
অশুদ্ধ : বিবিধ প্রকার জিনিস কিনলাম।
শুদ্ধ : বিবিধ জিনিস কিনলাম।

অশুদ্ধ : বিদ্রোহী কবির অগ্নিবিনা পড়েছ কী?
শুদ্ধ : বিদ্রোহী কবির অগ্নিবীণা কাব‌্য পড়েছ কী?
অশুদ্ধ : বাংলাদেশ সমৃদ্ধশালী দেশ।
শুদ্ধ : বাংলাদেশ সমৃদ্ধিশালী।
অশুদ্ধ : বিষয় সম্পত্তি সব উৎসন্নে হয়ে গিয়েছে।
শুদ্ধ : বিষয় সম্পত্তি সব উৎসন্নে গিয়েছি।
অশুদ্ধ : বার্ষীক পরীক্ষা সমাগত।
শুদ্ধ : বার্ষিক পরীক্ষা সমাগত।
অশুদ্ধ : বইটার নামকরণ ঠিক হয়নি।
শুদ্ধ : বইটির নামকরণ ঠিক হয়নি।
অশুদ্ধ : বালকটি আরোগ্য হইয়াছে।
শুদ্ধ : বালকটি আরোগ‌্য লাভ করিয়াছে।
অশুদ্ধ : বাল্যাবধি হইতে এখানে আছে।
শুদ্ধ : বাল্যাবধি এখানে আছে।
অশুদ্ধ : বর্তমানে তাহার খুব দুরাবস্থা।
শুদ্ধ : বর্তমানে তাহার খুব দুরবস্থা।
অশুদ্ধ : ভাতের মাঢ় ফেলতে নেই।
শুদ্ধ : ভাতের মাড় ফেলতে নেই।
অশুদ্ধ : ভাইয়ে ভাইয়ে ঐক্যতা নাই।
শুদ্ধ : ভাইয়ে ভাইয়ে ঐক্য নেই।

অশুদ্ধ : মাতাহীন শিশুর কি দুঃখ।
শুদ্ধ : মাতৃহীন শিশুর কি দুঃখ।
অশুদ্ধ : মনরম উদ্যানে আমরা ভ্রমণ করলাম।
শুদ্ধ : মনোরম উদ্যানে আমরা ভ্রমণ করলাম।
অশুদ্ধ : রবিঠাকুরের গীতাঞ্জলী বিখ্যাত কাব্য।
শুদ্ধ : বরী ঠাকুরের গীতাঞ্জলী বিখ্যাত কাব্যগ্রন্থ।
অশুদ্ধ : রোগের বৃদ্ধি হইয়াছে।
শুদ্ধ : রোগ বৃদ্ধি পাইয়াছে।
অশুদ্ধ : লেখাপড়ায় তার মনযোগ নেই।
শুদ্ধ : লেখাপড়ায় তার মনোযোগ নেই।
অশুদ্ধ : লোকটা নির্দোষী
শুদ্ধ : লোকটা নির্দোষ।
অশুদ্ধ : শেষ দিন পুরস্কার বিতরণী করা হবে।
শুদ্ধ : শেষ দিন পুরস্কার বিতরণ করা হবে।
অশুদ্ধ : শ্বশ্রু গৃহে জামাতা সমাদর লাভ করেন।
শুদ্ধ : শ্বশ্রূ গৃহে জামাতা সমাদর লাভ করেন।
অশুদ্ধ : সে এমন রূপসী যেন অপ্সরী।
শুদ্ধ : সে এমন রূপবতী যে অপ্সরা।
অশুদ্ধ : সবিনয় পূর্বক নিবেদন।
শুদ্ধ : সবিনয় নিবেদন।

অশুদ্ধ : সাবধান পূর্বক চলবে।
শুদ্ধ : সাবধানে চলবে।
অশুদ্ধ : সে ক্রোধে আত্মহারা হয়ে উঠেছে।
শুদ্ধ : সে ক্রোধান্ধ হয়েছে।
অশুদ্ধ : সে ভয়ানক সুখে আছে।
শুদ্ধ : সে খুব সুখে আছে।
অশুদ্ধ : সে গাছ হতে অবতরণ করল।
শুদ্ধ : সে বৃক্ষ হতে অবতরণ করল।
অশুদ্ধ : সে লজ্জায় মরমে মরে গেল।
শুদ্ধ : সে লজ্জায় মর্মে মরে গেল।
অশুদ্ধ : সযত্নে পাঠ অভ্যাস কর।
শুদ্ধ : সযত্নে পাঠাভ্যাস কর।
অশুদ্ধ : সে শঙ্কিত চিত্তে কাল কাটায়।
শুদ্ধ : সে শঙ্কিত চিত্তে কাল যাপন করে।
অশুদ্ধ : সদ্যজাত সন্তানের মুত্যু হয়েছে।
শুদ্ধ : সদ্যোজাত সন্তানের মৃত্যু হয়েছে।
অশুদ্ধ : সমুদ্রিক মৎস সুস্বাদু নয়।
শুদ্ধ : সামুদ্রিক মৎস্য সুস্বাদু নয়।
অশুদ্ধ : সে ষোড়স বর্ষে পদার্পণ করল।
শুদ্ধ : সে ষোড়শ বর্ষে পদার্পণ করল।

অশুদ্ধ : সদা সর্বদা মিতব্যয়ী হবে।
শুদ্ধ : সর্বদা মিতব্যয়ী হবে।
অশুদ্ধ : সকল সভ্যগণই উপস্থিত ছিলেন।
শুদ্ধ : সকল সভ্যই উপস্থিত ছিলেন।
অশুদ্ধ : হীন চরিত্র মানুষ পশ্বধর্ম।
শুদ্ধ : চরিত্রহীন মানুষ পশ্বাধম।
অশুদ্ধ : মেঘনা বাংলাদেশের বড় নদী।
শুদ্ধ : মেঘনা বাংলাদেশের দীর্ঘতম নদী।
অশুদ্ধ : এই পুস্তকের আবশ্যক আমার নাই।
শুদ্ধ : এই পুস্তকের আবশ্যকতা আমার নেই।
অশুদ্ধ : সেখানে গেলে তুমি অপমান হবে।
শুদ্ধ : সেখানে গেলে তুমি অপমানিত হবে।
অশুদ্ধ : খেলা চলাকালীন সময়ে গোলমাল শুরু হল।
শুদ্ধ : খেলা চলার সময়ে গোলমাল শুরু হলো।
অশুদ্ধ : তিনি আমার চেয়ে অধ্তির জ্ঞানী।
শুদ্ধ : তিনি আমার চেয়ে অধিক জ্ঞানী।
অশুদ্ধ : তিনি আসামির স্বপক্ষে সাক্ষী দিলেন।
শুদ্ধ : তিনি আসামির পক্ষে সাক্ষ্য দিলেন।
অশুদ্ধ : তিনি একজন কৃতি পুরুষ।
শুদ্ধ : তিনি একজন কীর্তিমান পুরুষ।

অশুদ্ধ : আমার বড় দুরাবস্থা।
শুদ্ধ : আমার বড় দুরবস্থা।
অশুদ্ধ : দু'বাড়ির গিন্নির মধ‌্যে খুব সখ্যতা।
শুদ্ধ : দু'বাড়ির গিন্নির মধ্যে খুব সদ্ভাব।
অশুদ্ধ : তিনি সহসা আসবেন বলে গেছেন।
শুদ্ধ : তিনি হঠাৎ আসবেন বলে গেছেন।
অশুদ্ধ : দারিদ্র্যতা লজ্জার বিষয় নয়।
শুদ্ধ : দারিদ্র্য লজ্জার বিষয় নয়।
অশুদ্ধ : বাংলা বানান আয়ত্ব করা কঠিন।
শুদ্ধ : বাংলা বানান আয়ত্ত করা কঠিন।
অশুদ্ধ : সর্ব বিষয়ে বাহুল্যতা বর্জন কর।
শুদ্ধ : সর্ব বিষয়ে বাহুল্য বর্জন কর।
অশুদ্ধ : আবশ্যকীয় ব্যয়ে কার্পণ্যতা অনুচিত।
শুদ্ধ : আবশ্যকীয় ব্যয়ে কার্পণ্য করা অনুচিত।
অশুদ্ধ : আধুনিক চেতনাই এই কবির বৈশিষ্ট্যতা।
শুদ্ধ : আধুনিক চেতনাই এই কবির বৈশিষ্ট্য।
অশুদ্ধ : বাংলাদেশ একটি উন্নতশীল রাষ্ট্র।
শুদ্ধ : বাংলাদেশ একটি উন্নয়নশীল রাষ্ট্র।
অশুদ্ধ : তিনি সানন্দিত চিত্তে সম্মতি দিলেন।
শুদ্ধ : তিনি সানন্দ চিত্তে সম্মতি দিলেন।
অশুদ্ধ : লেখাপড়ায় তার মনযোগ নেই।
শুদ্ধ : লেখাপড়ায় তার মনোযোগ নেই।
অশুদ্ধ : তার দেহ আপাদমস্তক পর্যন্ত আবৃত ছিল।
শুদ্ধ : তার দেহ আপাদমস্তক আবৃত ছিল।

শুদ্ধিকরণ-সংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর

এখানে শুদ্ধিকরণ-এ সংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর এর নমুনা দেওয়া হলো।

  1. শব্দ প্রয়োগকালে যদি তার যোগ্যতা হারায় তবে তাকে কোন দোষে দুষ্টু বলা হয়? উত্তর: গুরুচণ্ডালী।
  2. ‘অরণ‌্যে রোদন’ না বলে ‘বনে ক্রন্দন’ বললে বাক্যটি কী হারাবে? উত্তর: যোগ্যতা।
  3. “সকল আলেমগণ আজ উপস্থিত” বাক্যটি কোন দোষে দুষ্ট? উত্তর: বাহুল্য।

শুদ্ধিকরণ-বহুনির্বাচনি প্রশ্নোত্তর

এখানে বানান শুদ্ধিকরণ-এ বহুনির্বাচনি প্রশ্ন ও উত্তরের নমুনা বা উদাহরণ দেওয়া হয়েছে।

  1. কোন বানানটি শুদ্ধ?
    1. মূহূর্ত
    2. মুহূর্ত
    3. মূহুর্ত
    4. মুহুর্ত
    5. খ।
  2. বাংলা বানান রীতি অনুযায়ী একই শব্দের কোন দুটো বানানই শুদ্ধ?
    1. বাড়ি/বাড়ী
    2. নারি/নারী
    3. দাদি/দাদী
    4. জাতি/জাতী
    5. ক।
  3. কোনটি শুদ্ধ?
    1. উৎপাৎ
    2. উৎপাত
    3. উতপাত
    4. উতপাৎ
    5. খ।
  4. কোনটি অশুদ্ধ?
    1. দারিদ্রতা
    2. দারিদ্র
    3. দারিদ্র্য
    4. দরিদ্রতা
    5. ক।
  5. কোন বানানটি শুদ্ধ?
    1. সৌজন্যতা
    2. সৌজন্নতা
    3. সৌজন‌্য
    4. সৌজন্ন
    5. গ।
  6. নিম্নের কোন দুটি বানানই শুদ্ধ?
    1. নারি/নারী
    2. পরি/পরী
    3. হাতি/হাতী
    4. দাদি/দাদী
    5. গ।
  7. কোন বানানটি শুদ্ধ?
    1. শুশ্রূষা
    2. শুশ্রুষা
    3. সুশ্রুষা
    4. শুশ্রূসা
    5. ক।
  8. কোন বানানটি শুদ্ধ?
    1. সমিচিন
    2. সমীচীন
    3. সমীচিন
    4. সমিচীন
    5. খ।
  9. অশুদ্ধ হলেও কোন বানানটি বর্তমানে প্রচলিত?
    1. অত্যন্ত
    2. ব‌্যাকরণ
    3. ভূত
    4. উপরোক্ত
    5. ঘ।
  10. শুদ্ধ বানান কোনটি?
    1. মূমূর্ষ
    2. মুমুর্ষ
    3. মুমূর্ষু
    4. মুমূর্ষ
    5. গ।
  11. কোনটি শুদ্ধ?
    1. পুঙ্খানু পুঙ্খন
    2. পুঙ্খানুপুঙ্খ
    3. পুঙ্খানুপূঙ্ঘ
    4. পুঙ্খানুপুন্থ
    5. খ।
  12. কোন বানানটি শুদ্ধ?
    1. সান্ত্বনা
    2. সান্তনা
    3. শান্তনা
    4. সান্ত্যনা
    5. ক।

পরীক্ষার জন‌্য ব‌্যাকরণ-এর গুরুত্বপূর্ণ বিষয়সমূহ

সকল প্রকার ভর্তি পরীক্ষা, চাকরির পরীক্ষা, HSC পরীক্ষা ও SSC পরীক্ষার জন‌্য বাংলা ব‌্যাকরণ-এর গুরুত্বপূর্ণ বিষয়সমূহের লিংক নিচে দেয়া হলো। হলুদ বাটনে ক্লিক করে বিষয়ভিত্তিক পেজগুলো ভিজিট করুন।

বাগধারা কাকে বলে? অক্ষর দিয়ে বাগধারা পড়তে এখানে ক্লিক করুন। সন্ধি কি? সন্ধি শব্দের অর্থ কি? পড়তে এখানে ক্লিক করুন। এককথায় প্রকাশ বা বাক‌্য সংকোচন পড়তে এখানে ক্লিক করুন সমাস ‍কি? সমাস কত প্রকার? পড়তে এখানে ক্লিক করুন। কারক কাকে বলে? কারক কত প্রকার? বিভক্তি কি? বিভক্তি কত প্রকার? পড়তে এখানে ক্লিক করুন। সমার্থক শব্দ বা প্রতিশব্দ কি ও এর উদাহরণ পড়তে এখানে ক্লিক করুন। বিপরীত শব্দ পড়তে এখানে ক্লিক করুন লিঙ্গ প্রকরণ এর বিস্তারিত এখানে পড়ুন বচন অর্থ সংখ্যার ধারণা, বিস্তারিত এখানে পড়ুন বিরামচিহ্ন কাকে বলে? বাংলায় বিরামচিহ্ন কয়টি ও কি কি? পড়তে এখানে ক্লিক করুন। প্রমিত বাংলা বানান কী? প্রমিত বাংলা বানানের দশটি নিয়ম লেখ। পড়তে এখানে ক্লিক করুন। জোড় বা সমোচ্চরিত শব্দ- অ থেকে ঔ পর্যন্ত পড়তে এখানে ক্লিক করুন।